Search

Month

September 2016

Mystic Dream

The lustreless awning in soliloquy

Beckons the numinous perceive

In the aura of cornucopia glee

The autumn sonata croons the chorale

Lost love in lonesome suave

Harping the tune of yester mauve.

When the bluish violet outshone rest

Amid the florid colours at its best.

The new moon drifted into gloomy clouds

To kindle the silhouette, the goddess divine

The sultry clouds lost in gloomy air

A rift amidst the midnight choir

Singing the chorus of cosmic dance

Prince charming and mermaid’s romance.

 

Gone are the days of merry tales

Now is storm amid lonely gales.

Even when the cabalistic moon shines

Seems as if the bright devil dines

Noshing amid the fallows of wilderness

Seeking the real flawless caress.

 

Nothing left except memoirs

The past amatory escapades

A spark to dear old delight

To ignite the latent light.

Is it a mystic dream?

Living, cuddling past

Forgetting the zest?

Advertisements

আগমনী

“মা আমাদের পূর্ণ উচ্চারণ, প্রথম পুণ্য অনুভব

মাগো যেদিকে চাই, সেদিকে রয়েছ তুমি

তুমি শুভ প্রতীক, জীবনবোধের অবারিত বাসভূমি

তুমি ভোরের আলোয় ভরা পবিত্রতার চেনা মুখ

স্নিগ্ধ, শান্ত, প্রসন্নতার চিরসুখ

ভবনে থেকেও তুমি ভুবনগামী

মাগো যেদিকে চাই, সেদিকে রয়েছ তুমি

একটু চোখের আড়াল হলে অভিমানে বহুদূর

ক্ষমায় আপন তুমি মোহন বাঁশির মিঠে সুর

অন্তরে থেকে তুমি অন্তর্যামী

মাগো, যেদিকে চাই, সেদিকে রয়েছ তুমি”

এক অজানা সর্বশক্তিমানকে যুগ যুগ ধরে মানুষ কল্পনার চোখে দেখেছে। কারণ পৃথিবী সৃষ্টির আদি অনন্তকাল থেকে পূর্ব পুরুষেরা শিখিয়েছেন ক্ষমতা বাইরেও এমন কোনও শক্তি আছে যে আমাদের জীবনের গতিপথকে নিয়ন্ত্রণ করে। সেই সর্বশক্তিমানকে তাদের সর্বস্ব দিয়ে ভক্তির অর্ঘ দিয়েছে। কখনো বা এই অজানা অচেনা তীব্র শক্তিকে একাকী নিভৃত আঁধারে, কখনো বা কোনও বিগ্রহ রূপে, কখনো বা কোনও মহাপুরুষের বাণীকে পাথেয় করে ধর্মের কাছে সঁপে।

যদিও ধর্ম ইতিহাস সাক্ষী বহু ধর্ম যুদ্ধের, তাকে উপেক্ষা করেই ধর্মের প্রবক্তাদের আনুষ্ঠানিক ভক্তি-শ্রদ্ধা জানিয়েছে। রামচন্দ্রের অকালবোধন ঠাই পেয়েছে শরতের সুপ্রভাতে, ঘরের মেয়ের আরাধনায় – স্বর্গলোক থেকে মর্তলোকে, কল্পনার দেবীকে বড় কাছে পাওয়ার চারটে দিনে। শুধু কাছ থেকে পুজর অর্ঘ নিবেদনে নয়, দেবী ও তার চার পুত্র-কন্যাকে নিজের করে পাওয়া, আনন্দঘেরা উৎসবে। পুজ আসছে। ‘বাজলো তোমার আলোর বেণু’ – ভুবন মেতেছে পুজর উৎসবে। মা কল্পনার মহাবিশ্ব থেকে বাস্তবের মাতৃগৃহে ছুটি কাটাতে আসছেন।

তাই আমাদেরও ছুটি। আনন্দোৎসব। দুর্গোৎসব।

নতুন নতুন থিমে সাজাচ্ছে কাল্পনিক মাতৃত্বকে। কল্পনার দেবীর রূপ ও আঁকার পাল্টেছে, যুগের তালে তাল রেখে। নিজেরাও সাজছে নতুন বেশে, মাকে ইহলোকে বন্দনা করতে। রাগ, ক্লেশ, বিবাদ, দুঃখ ভুলে একসঙ্গে মিলতে, মায়ের আগমনী আসরে। একই ছন্দে, একই তালে, মায়ের বন্দনাগানে।

সর্বশক্তিমান তো অন্তরের শ্রদ্ধার প্রতীক মাত্র। বিগ্রহের পুজর বাইরে তো হাজারও মা লুকিয়ে আছে আমাদের মধ্যে। গৃহবধূ থেকে না-চেনা বধূ। এই মাতৃত্বের রূপ যুগ যুগ ধরে পাল্টেছে। কখনো আটপৌর শাড়ীতে জননী রূপে, কখনো বিবাহের বন্ধনের বাইরে লিভিং টুগেদার সম্পর্কে, কখনো বা গণিতের ‘ভেন ডায়াগ্রাম থিওরি’ আকারে জৈবিক সম্পর্কের ঊর্ধ্বে অন্তরের না-বলা ছন্দের নিঃশব্দ মৌনতায়। এই মৌনতায় মধ্যে অচেনা জীবনের স্পন্দন। যেখানে বাজে না-চেনা রাগ, ঝঙ্কার তোলে না-বলা মাতৃত্বের বোল। সে সুর তো আমাদের মধ্যেই। শুধু তাকে পরখ করাটাই অজানা। নিঃশব্দ মৌনতায়, আপেক্ষিকতার মোহ কাটিয়ে, অন্তরের নিভৃতে। যেখানে অজান্তে, অলক্ষ্যে বেজে চলে লেসারের কম্পন, জা মিসেল জার অজানা নতুন সিম্ফনি।

rozabal_shrineগামী দিনে এই সংজ্ঞার বিবর্তন হবে। বন্ধনের বাইরে মাদার মেরির যিশু খ্রিস্টেকে জন্মের রূপকথা আপ্লুত করবে না আমাদের মূর্খ চেতনাকে। সেদিন আরেক যিশু ইউজ আসফ নাম নিয়ে, কোনও এক রোজাবালে বসে শোনাবে আজিবক, সনাতন ধর্মের মূলকে পাথেয় করে, আকারহীন সত্যের অমৃত কথা, আগামীর দর্শন। নাই বা থাকল নাম, নাই বা দেওয়া হল রূপ। বাহাউল্লার মতো শোনাবে চিরায়িত অমৃত সত্য “কসরৎ মেঁ ওহেদৎ”। সেই তো প্রকৃত আরাধনার প্রতিমূর্তি। যে বিশ্বমানবকে বাঁধতে পারে আকারহীন, ধর্মহীন মানবতার বন্ধনে। যা দেশ, কাল, সভ্যতা ভুলে, মানুষেকে বাঁধবে বিশ্বমানবের কল্যাণে। তাকে বরণ করে বেজে উঠবে নতুন আগমনী শঙ্খ, অন্তরের মিলনযজ্ঞে। আগমনীর বন্দনাগানে।

সন্ধ্যারতির পূজার নৈবেদ্য সেদিন মিলবে না-শোনা অন্তরের ঝংকারে। মায়া-কায়া মিলেমিশে একাকার, মাতৃত্বের না-চেনা সুরের ছন্দে। নতুন আনন্দে। গভীর অন্ধকার থেকে আলোর স্পর্শে। মা তো আরাধ্য বিগ্রহের বাইরে একটা উপলব্ধি, একটা অনুভূতি। মুক্তির পথ। শান্তির পথ। চেতনার উত্তরণ। শূন্যতার মধ্যে পূর্ণতার আবেশ। সেই সময় ফিরে দেখতে হবে নিজেকে।

যতদিন না ক্ষুদ্র ব্যক্তিত্ব মিলেমিশে একাকার হয় মহাবিশ্বের অধিষ্ঠিতে, আগমনী অসম্পূর্ণ। যেখানে অস্তিত্বটা অনাপেক্ষিক। জীবাত্মার সংগে পরমাত্মার অবিচ্ছেদ্য মিলনে পূর্ণতা – একমেবাদ্বিতিয়ম ‘সো অহং’ । সেখানে আলো নেই তবু আলোর বন্যা, যেখানে গন্ধ নেই তবু সুগন্ধের ঝর্না, যেখানে কেউ নেই, তবু যেন কার অমৃতস্পর্শে দেহ মন আনন্দে শিহরিত হয়ে ওঠে প্রতি পলে। যেখানে স্তম্ভিত জাগ্রত মহাবিশ্ব বরণ করে নেয় সত্ত্বা আর আত্মাকে পরম স্নেহে। কানে কানে নিঃশব্দে শোনায় এক গম্ভীর প্রণবধ্বনি শান্তির আলোকে, মহাবিশ্বের পরম সত্যের অমৃত কথাঃ

‘ওঁ প্রত্যাগ্যানন্দং ব্রহ্মপুরুষং প্রণবস্বরূপং

অ-কার উ-কার ম-কার ইতি

ওঁ স্বর্বভূতস্থং একং বই নারায়ণং পরমপুরুষং

অকারণং পরমব্রহ্মং ওঁ

ওমিতি ব্রহ্ম ওমিতি ব্রহ্ম…’

CF BLOCK RESIDENTS ASSOCIATION, SALT LAKE CITY, KOLKATA
agomoni1

agomoni2

agomoni3

Agomoni

BEYOND THE LYRICS OF LIFE

Review of the LYRICS OF LIFE Poetry Book by Ravi Ranganathan

It was a conflagrate gratifying experience to go through the poems of my childhood friend Ravi Ranganathan. Though he names his book as ‘LYRICS OF LIFE’, I feel the book should have been named ‘LYRICS OF LIFE AND BEYOND’.

Sorcerous perched at the postern of mortality, the obvious Saturn trait unveils as one reads his poems. Flashes of cherished childhood memoirs haunt the poet, as he reminisces in ‘hallucination’ of the karmic drudgery of his mother. The jaunt of life had alienated him from the splendour of the ‘dark clouds and the trusted rain’. In his quest of the Divine peace, an awakening dawn ‘Fame and glory will fade into dust, vain existence preceding vain death’.

If it be so, what is the nisus he aspires to milk in his lyrics of life poetic descant?

The mystic poet, without despond, submits at the crib of Nature ‘Uncontrollable sea, be not proud this shuddering exposure’ with a flicker of hope ‘Only this ray, only this gleam kindles the spark of visionary dream’ digs inwards ‘checking my urge to delve deep’ to ‘see light, truth ere you reach your graves’. The subconscious ricochets Saturn, where the mortality is quotidian grind, where the soul seeks to traverse the enigmatic horizon to the anon, be it under the counsel of ‘scholarly Guru Who knows the highs and lows of each and every voice’ or ‘Amidst Monks in ochre robes practising spirituality’. Often without aid in solitary rumination where ‘Shadows, insubstantial shadows keep hovering on the horizon’ with a Spartan zeal to taste the clandestine canopy of peace.

In the ascent of Asthamangik Marg, the evolution embarks from unconscious to consciousness, to visualise beyond the paradigms of mortality the lyrics of life, where the ‘Death is whispering in Life’s ears to quell the unrest’. Life and death are two sides of the same coin, like daylight and darkness, or the circadian state of sleep and awakening. It is the soul’s yen to hear ‘OM’ (A-U-M) Anahat Nada or the vibration of the purest Supreme as in Manduka Upanishad – waking, dreaming and dreamless deep sleep. The poet yearns this transition as you flip through the pages of the book. This mission in many of his pieces cross the precincts of mortality to fathom the Supreme, sometimes through Nature at other times beyond.

He is optimistic the ‘Horizon Still Reachable’ as well as confident ‘I know I will clearly take off before the mayhem’ as he tweaks his soul ‘Put an end to this sempiternal show Tune within you as you bow’. This melody within, is the key spark for the soul to kindle in darkness or dreamless deep sleep, where it blends with the awaken.

Simple to the naked eye, all poems have a buried desire to attain the sublime peace beyond the fetters of mortality into a domain beyond.

 

 

Create a free website or blog at WordPress.com.

Up ↑

Writcrit

Creative and Bookish

The Blabbermouth

Sharing life stories, as it is.

Prescription For Murder

MURDER...MAYHEM...MEDICINE

Journeyman

Travel With Me

কবিতার খাতা

কবিতার ভুবনে স্বাগতম

NEW MEDIA

LITERARY PAGE

Coalemus's Column

All about life, the universe and everything!

Ronmamita's Blog

Creatively Express Freedom

যশোধরা রায়চৌধুরীর পাতা

তাকে ভালবাসি বলে ভাবতাম/ ভাবা যখনই বন্ধ করেছি/দেখি খুলে ছড়িয়েছে বান্ডিল/যত খয়েরি রঙের অপলাপ/আর মেটে লাল রঙা দোষারোপ

Kolkata Film Direction

Movie making is a joyful art for me. I enjoy it as hobbyist filmmaker - Robin Das

arindam67

বাংলা ট্রাভেলগ

The Postnational Monitor

Confucianist Nations and Sub-Sahara African Focused Affairs Site

TIME

Current & Breaking News | National & World Updates

বিন্দুবিসর্গ bindubisarga

An unputdownable Political Thriller in Bengali by Debotosh Das

rajaguhablog

Welcome to your new home on WordPress.com

জীবনানন্দ দাশের কবিতা

অন্ধকারে জলের কোলাহল

Debraj Moulick

Dangling between Books & Films

A Bong পেটুক's quest .....

“I hate people who are not serious about meals. It is so shallow of them.” ― Oscar Wilde, The Importance of Being Earnest

প্যাপিরাস

সোনারতরী থেকে প্রকাশিত ওয়েব পত্রিকা

%d bloggers like this: