আমি কী মুক্ত বিহঙ্গের ডানা কাটা পাখা?

আমি কী আমার আমির মধু আস্বাদনে মাখা?

আমি কী আমার আমিত্বে ক্ষয়ে যাওয়া এক পুতুল?

আমি কী ব্যর্থ আমার আমিত্বের না-চেনা মহিমায় মশগুল?

আমি কী হারিয়ে গেছি তোষামোদি লবির আড়ষ্টে

আমার হারানো আমিকে পুনঃ প্রতিষ্ঠা করতে?

আমি কী হারিয়ে গেছি আমাকে ভুলতে

নিজের আমিকে ভুলে ওদের জানতে?

আমি কী হারিয়ে গেছি দহিতাকে বাহু দিতে?

আমি কী হারিয়ে গেছি নিজের আমিকে চিনতে?

আমার আমি এক নির্বাক অন্ধকার

আমার আমি খোঁজে বিহঙ্গের ভার।

আমার আমি এক সুপ্ত অহংকার

পঞ্চম স্বর্গের ষষ্ঠ স্রোতে

খোঁজে আমার  ধুল্যবলূণ্ঠীত অহমের না-দেখা সমীহার।

আজীবন খুঁজে ফেরা আমিত্বের নিঃশব্দ অঙ্গিকার।

আমার আমি গুমরে কাঁদে নিশুতিতে

ব্যর্থ অহংকার ভরা না-পাওয়া

অবলুণ্ঠিত জীবনের না-দেখা প্রভাতে।

একটা না-পাওয়া সেলাম।

করে আমার আমিত্বের স্বপ্নকে বলিয়ান।

আমি তো নই দিক্বিদিক নিশ্চিহ্ন কারও ল্যাজ ধরা পুচ্ছ

নপুংসকের চেয়েও অধম কাউকে করতে সেলাম।

আমার আমি কি বিকিয়ে গেছি কাউকে করতে ম্যুহ্যমান?

আমার বিহঙ্গ পাখনা মেলে আমার চেতনাকে সেলাম।

অবলুণ্ঠিত বিহঙ্গ

নীরব শব্দ শেখায় আগামী দিনের গান,

আগামী পৃথ্বী ডাকে আমাকে গড়তে কালকের প্রণাম।

মূর্খ অথর্ব এক চাওয়া ওঠ দু চোখ জাগা রাতের চোখ

আমার পরিপূর্ণ নিলামের রাত ভোর দেওয়া

নিশুতির রাতের মধ্যরাতে তোমাকে পাওয়া…

সুখহীণ ঈশ্বর…আত্মার স্তব্ধ বিস্ময়ে আমি শিখর

মুহূর্তের  খোঁজা না-পাওয়া না-দেখা অবিনশ্বর

আমার আমিকে খুঁজে পাওয়া কুলাঙ্গার এক নশ্বর।

তোমার ভুয়ো নিরলস রূপের এক নিকৃষ্ট রূপান্তর।

যে নিঃশব্দ পশরা গ্রহণ করে অক্লেশে পান বহর।

খুঁজে ফেরে না-চেনা স্পর্শের না-পাওয়া অধর।

মুক্ত বিহঙ্গ খোজে নিজের চেতনা।

শেখানেই আছে আমার না-বোঝার না-চেনা অন্তর।

নিভৃত ঘরের নিঃশব্দ কোণে নিঃশব্দ অবলোকন।

কে ও পাখনা মেলা পরী?

আমার স্বপনের সুন্দরী?

আমার কানে কানে কয়…

নিরালা জোছনায় এক স্বপ্ন মাখা মধুময়

তোমার স্বপন দেখানো জ্যোৎস্নায়।

আমি তোমার কূদৃষ্ট তোমার না-দেখা মহিমায়।

তোমার শ্রেষ্ঠ কুলাঙ্গার তোমার  লুণ্ঠিত যাতনায়।

তোমার বহ্নি শোণিত তোমার না-খোলা তলোয়ার

আমিই তোমার শিল্প গণিত না-ছোঁয়া শৃঙ্গার।

আমিই তোমার বিহঙ্গের মুক্তি

তোমার  সুপ্ত তলোয়ার

আমিই তোমার শ্রেষ্ঠ তীর সমরের হুশিয়ার।

তোমার কুরবান,

তোমার ভবিষ্যৎ

তোমার মুক্ত বিহঙ্গ অনিবার।

আমিই তোমার সুপ্ত সাধনা

তোমার নিভৃত অনাড়ম্বর জৌলুসে ভরা

ইহলৌকীক পরলৌকীক নিষিদ্ধ অনন্ত প্রেম

আমিই তোমার উদ্গার বহ্নি স্রোতের প্লাবনে।

তোমার শ্রাবণহীন  বৈবভের নিশীথ শৃঙ্গার

বাঁধভাঙা বসন্তের ভাঙনের প্লাবনে

নিশুতির কালবৈশাখী মাখা গগনে

নিশ্চিত উপহার।

আমিই মুক্তি আমিই শান্তি

আমিই বিহঙ্গ খোলো আঁখি ভোর।

আমিই বিহঙ্গ তোমারই অঙ্গ

খোলো নিদ্রিত আঁখি তোর।

Advertisements